ফেলুদা সমগ্র | Feluda Samagra PDF in Bengali

ফেলুদা সমগ্র | Feluda Samagra PDF in Bengali

ফেলুদা সমগ্র | Feluda Samagra Book PDF in Bengali Free Download

ফেলুদা সমগ্র | Feluda Samagra PDF in Bengali
লেখক / Writerসত্যজিৎ রায় / Satyajit Ray
বইটির নাম / Name of Bookফেলুদা সমগ্র / Feluda Samagra
বইয়ের ভাষা / Book of Languageবাংলা / Bengali
বই আকার / Book Size6.7 MB
মোট পৃষ্ঠা / Total Pages506
শ্রেণী / Categoryउपन्यास / Upnyas-Novel
ডাউনলোড / DownloadClick Here

আমরা আপনাকে ফেলুদা সমগ্র pdf এর লিঙ্ক দিচ্ছি, আপনি নীচের লিঙ্ক থেকে বইটির pdf ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি যদি ডাউনলোড করতে কোনো ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হন, তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে আমাদের জানান, আমরা আপনাকে পূর্ণ সহায়তা দেব এবং আমরা আপনাকে এই পিডিএফের জন্য আরেকটি লিঙ্ক দেব, তারপর আপনি আমাদের বলুন আপনি কী সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন।


পিডিএফ ডাউনলোড করতে, আপনাকে নীচের লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে, ক্লিক করে, আপনি আপনার ডিভাইসে
পিডিএফ সংরক্ষণ করতে পারেন এবং এটি পড়তে পারেন।

নীচের লিঙ্কে ক্লিক করুন >

Feluda Samagra PDF in Bengali Download

ফেলুদা সমগ্র একটি বইয়ের একটি যান্ত্রিক অংশ

বাবা যখন বললেন, ‘তোর ধীরুকাকা অনেকদিন থেকে বলছেন—তাই ভাবছি এবার পুজোর ছুটিটা লখনৌতেই কাটিয়ে আসি’—তখন আমার মনটা খারাপ হয়ে গিয়েছিল।

আমার বিশ্বাস ছিল লখনৌটা বেশ বাজে জায়গা । অবিশ্যি বাবা বলেছিলেন ওখান থেকে আমরা হরিদ্বার লছমনঝুলাও ঘুরে আসব, আর লছমনঝুলাতে পাহাড়ও আছে—কিন্তু সে আর কদিনের জন্য ?

এর আগে প্রত্যেক ছুটিতে দার্জিলিং না হয় পুরী গিয়েছি। আমার পাহাড়ও ভাল লাগে, আবার সমুদ্রও ভাল লাগে। লখনৌতে দুটোর একটাও নেই।

তাই বাবাকে বললাম, ‘ফেলুদা যেতে পারে না আমাদের সঙ্গে ফেলুদা বলে ও কলকাতা ছেড়ে যেখানেই যাক না কেন, ওকে ঘিরে নাকি রহস্যজনক ঘটনা সব গজিয়ে ওঠে।

আর সত্যিই দার্জিলিং-এ যেবার ও আমাদের সঙ্গে ছিল, ঠিক সেবারই রাজেনবাবুকে জড়িয়ে সেই অদ্ভুত ঘটনাগুলো ঘটল। তেমন যদি হয় তা হলে জায়গা ভাল না হলেও খুব ক্ষতি নেই।

বাবা বললেন, ‘ফেলু তো আসতেই পারে, কিন্তু ও যে নতুন চাকরি নিয়েছে, ছুটি পাবে কি ? ফেলুদাকে লখনৌয়ের কথা বলতেই ও বলল, ‘ফিফটি-এইটে গেস্লাম—ক্রিকেট খেলতে। জায়গাটা নেহাত ফেলনা নয়।

বড়াইমামবড়ার ভুলভুলাইয়ার ভেতরে যদি ঢুকিস তো তোর চোখ আর মন একসঙ্গে ধাঁধিয়ে যাবে। নবাব-বাদশাহের কী ইম্যাজিনেশন ছিল—–বাপরে বাপ।

‘তুমি ছুটি পাবে তো ? ফেলুদা আমার কথায় কান না দিয়ে বলল, ‘আর শুধু ভুলভুলাইয়া কেন—ওমৃতী নদীর ওপর মাছি ব্রিজ দেখবি, সেপাইদের কামানের গোলায় বিধ্বস্ত রেসিডেলি দেখবি। ‘রেসিডেন্সি আবার কী?

‘সেপাই বিদ্রোহের সময় গোরা সৈনিকদের ঘাঁটি ছিল ওটা। কিস্যু করতে পারেনি। ঘেরাও করে গোলা দেগে ঝাঁঝরা করে দিয়েছিল সেপাইরা।

দুবছর হল চাকরি নিয়েছে ফেলুদা, কিন্তু প্রথম বছর কোনও ছুটি নেয়নি বলে পনেরো দিনের ছুটি পেতে ওর কোনও অসুবিধে হল না।

এখানে বলে রাখি—ফেলুদা আমার মাসতুতো দাদা। আমার বয়স চোদ্দো, আর ওর সাতাশ। ওকে কেউ কেউ বলে আধপাগলা, কেউ কেউ বলে খামখেয়ালি, আবার কেউ কেউ বলে কুঁড়ে।

আমি কিন্তু জানি ওই বয়সে ফেলুদার মতো বুদ্ধি খুব কম লোকের হয়। আর ওর মনের মতো কাজ পেলে ওর মতো খাটতে খুব কম লোকে পারে।

তা ছাড়া ও ভাল ক্রিকেট জানে, প্রায় একশো রকম ইনডোর সেখ বা ঘরে বসে বেলা আনে, তাসের ম্যাজিক জানে, একটু একটু হিপ্নটিজম্ জানে, ডান হাত আর বাঁ হাত দুহাতেই লিখতে জানে।

আর ও যখন স্কুলে পড়ত তখনই ওর মেমারি এত ভাল ছিল যে ও দুবার রিডিং পড়েই পুরো ‘দেবতার গ্রাস’ মুখস্থ করেছিল।

Feluda Samagra PDF in Bengali All Parts by click on the link given below.

Leave a Reply

%d bloggers like this: